করোনা মোকাবিলায় দ. এশিয়ায় শীর্ষে বাংলাদেশ

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় আট ধাপ এগিয়ে বিশ্বের ১২১ দেশের মধ্যে পঞ্চম অবস্থানে উঠে এসেছে বাংলাদেশ। আর দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান শীর্ষে।

বৃহস্পতিবার (৫ মে) প্রকাশিত নিকেই কোভিড-১৯ আরোগ্য সূচকে বিশ্বের ১২১টি দেশের মধ্যে শীর্ষস্থানে রয়েছে কাতার। এরপরে পর্যায়ক্রমে সংযুক্ত আরব আমিরাত, কম্বোডিয়া ও রুয়ান্ডা। এরপরই বাংলাদেশের অবস্থান।

সূচকে ৮০ পয়েন্ট পেয়ে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে শীর্ষে রয়েছে বাংলাদেশ। এই অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে নেপাল ৫, পাকিস্তান ২৩ , শ্রীলঙ্কা ৩১ ও ভারত ৭০ নম্বরে রয়েছে।

এর আগে গত মার্চে ৭২ পয়েন্ট পেয়ে বাংলাদেশে অবস্থান ছিল ১৩তম।

সাম্প্রতিক মাসগুলোতে বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু কমেছে। শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ১৯ জনের করোনাভাইরাস সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এ সময় কারও মৃত্যু হয়নি। গত ২০ এপ্রিলের পর একটানা ১৭ দিন করোনায় কারও মৃত্যু হয়নি।

২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে প্রথম তিনজনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ওই বছরের ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। এরপর থেকে এখন পর্যন্ত দেশে ১৯ লাখ ৫২ হাজার ৭৬৬ জনের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১৮ লাখ ৯৭ হাজার ৪৬ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ২৯ হাজার ১২৭ জনের।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে বিভিন্ন দেশ ও অঞ্চলের ব্যবস্থাপনা, টিকা দেওয়ার হার এবং সামাজিক তৎপরতার ওপর ভিত্তি করে প্রতি মাসের শেষে এই সূচক প্রকাশ করা হয়। সূচকে যে দেশ সবচেয়ে উপরের দিকে অবস্থান হবে, দেশটি তত ভালোভাবে করোনাভাইরাস সামলে উঠছে বোঝাবে।করোনা মোকাবিলায় দ. এশিয়ায় শীর্ষে বাংলাদেশ